মা’হাদুল বুহুসিল ইসলামিয়ার ভর্তি সংক্রান্ত তথ্যাবলী

মা’হাদ সুদূরপ্রসারী চতুর্মুখী শিক্ষা পরিকল্পনা বাস্তবায়নের সুমহান লক্ষ্য নিয়ে ধীরে ধীরে এগিয়ে চলছে। মা’হাদ ইসলামী ফতওয়া ও উচ্চতর গবেষণা বিভাগের মাধ্যমে তার কার্যক্রমের সূচনা করলেও ইতিমধ্যেই মকতব, নাযেরা, তাহফীযুল কুরআন ও কিতাব বিভাগসমূহের মাধ্যমে তা সমৃদ্ধি লাভ করতে সক্ষম হয়েছে। মা’হাদের চলমান বিভাগুলোতে ভর্তি সংক্রান্ত কিছু নীতিমালা প্রবর্তন করা হয়েছে। ভর্তি নীতিমালা সংক্রান্ত সেসব তথ্যাবলী নিম্নে প্রদত্ত হলো-

দুই বছর মেয়াদী ফিকহ ও ফতওয়া বিভাগ

ফরম সংক্রান্ত ধারাক্রম

ক. টোকেন সংগ্রহ

খ. রেজাল্ট সত্যায়ন

গ. মৌখিক পরীক্ষা

ঘ. লিখিত পরীক্ষা

ঙ. ভর্তি ফরম সংগ্রহের অনুমোদন

ভর্তি পরীক্ষার বিষয়

ক. হিদায়া আখেরাইন

খ. নূরুল আনওয়ার

গ. বিষয়ভিত্তিক আরবী-বাংলা প্রবন্ধ

ঘ. মৌখিক পরীক্ষায় সংশ্লিষ্ট যে কোনো বিষয়ে প্রশ্ন করা হতে পারে

ভর্তির যোগ্যতা

ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীকে তাকমীল জামাআতে ন্যূনপক্ষে জায়্যিদ জিদ্দান (প্রথম বিভাগ)-এ উত্তীর্ণ হতে হবে।

উস্তানী সালেস (জামাআতে কাফিয়া)

ভর্তি পরীক্ষার বিষয়

১। বিশুদ্ধ কুরআন পাঠে সক্ষম হতে হবে।

২। হিদায়াতুন্নাহব, ইলমুস সীগাহ ও কালয়ূবী এ তিন কিতাবের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে।

উস্তানী সানী (জামাআতে হেদায়াতুন্নাহব)

ভর্তি পরীক্ষার বিষয়

১। বিশুদ্ধ কুরআন পাঠে সক্ষম হতে হবে।

২। নাহবেমীর ও ইলমুস সরফ (৩য় ও ৪র্থ খণ্ড)/পাঞ্জেগাঞ্জ এ দুই কিতাবের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে।

উস্তানী আউয়াল (জামাআতে নাহবেমীর)

ভর্তি পরীক্ষার বিষয়

১। বিশুদ্ধ কুরআন পাঠে সক্ষম হতে হবে।

২। মীযান মুনশাইব/ইলমুস সরফ (১ম ও ২য় খণ্ড) ও এসো আরবী শিখি (২য় খণ্ড) এ দুই কিতাবের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে।

ইবতিদায়ী সানী (জামাআতে মীযান)

ভর্তি পরীক্ষার বিষয়

১। বিশুদ্ধ কুরআন পাঠে সক্ষম হতে হবে।

২। তাইসীরুল মুবতাদী, ফারসী কী পেহলী কিতাব ও এসো আরবী শিখি (১ম খণ্ড) এ তিন কিতাবের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে।

ইবতিদায়ী আউয়াল (জামাআতে তাইসীর)

ভর্তি পরীক্ষার বিষয়

১। বিশুদ্ধ কুরআন পাঠে সক্ষম হতে হবে।

২। অনুবাদসহ উর্দূ কায়েদা পাঠে সক্ষম হতে হবে।

৩। ভর্তিচ্ছুক তালিবে ইলমের বয়স অনূর্ধ্ব ১৬ বছর হতে হবে।

তাহফীযুল কুরআন বিভাগ

ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীর যোগ্যতা

ক. তাজবীদ-সিফাত অনুকরণে বিশুদ্ধ কুরআন পাঠে সক্ষম হতে হবে।

খ. ভর্তিচ্ছু তালিবে ইলমের বয়স অনূর্ধ্ব ১২ বছরে সীমিত হতে হবে।

নাযেরা (দেখে কুরআন পাঠ) বিভাগ

ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীর যোগ্যতা

ক. তাজবীদ-সিফাত অনুকরণে বিশুদ্ধ আমপারা পাঠে সক্ষম হতে হবে।

খ. ভর্তিচ্ছু তালিবে ইলমের বয়স অনূর্ধ্ব ১২ বছরে সীমিত হতে হবে।

মকতব (প্রাথমিক শিশু শ্রেণী) বিভাগ

ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীর যোগ্যতা

পাঠ গ্রহণকারী ছাত্রের বয়স ৫ বছর হতে অনূর্ধ্ব ১২ বছরে সীমিত হতে হবে।

ইংরেজি শিক্ষিত ও বয়স্কদের জন্য ‘ফরযে আইন কোর্স’

দীনী জ্ঞান অর্জন করা প্রতিটি মুসলিমের জন্যই আবশ্যক। যারা জাগতিক, পারিবারিক, চাকুরী, ব্যবসাসহ নানা ব্যস্ততার কারণে ফরয পরিমাণ দীন শিখতে পারছেন না তাদের জন্য এই কোর্সটি চালু করা হয়েছে। সকাল সন্ধ্যার দুটি শিফটে ছাত্র ভর্তি নেয়া হবে।

বি.দ্র. মা’হাদের শিক্ষাবর্ষ শুরু হয় হিজরী বর্ষের শাওয়াল মাস থেকে। সুতরাং হিজরী বর্ষের শাওয়াল মাসের ৭ তারিখ থেকে মা’হাদের ভর্তি কার্যক্রম শুরু হয়।

ভর্তি সংক্রান্ত যাবতীয় যোগাযোগ

শিক্ষা দফতর

মা’হাদুল বুহুসিল ইসলামিয়া

বাড়ি- ১৩, রোড- ২, ব্লক- ডি, বসিলা গার্ডেন সিটি
মুহাম্মাদপুর, ঢাকা-১২০৭

মোবাইল : ০১৯৪০৩৭৬৭৪০, ০১৭৪২০৫০২০৬, ০১৬৯০০৮৪৮৭৬

পোস্টটি লাইক ও শেয়ার করুন।