[শিল্পির তুলিতে যায় না আঁকা]

মুহাম্মাদ ইরফান জিয়া

মাঝারি গড়ন। প্রশস্ত কাঁধ। লালিমা মিশ্রিত ফর্সা রঙ । চুল কানের লতি পর্যন্ত প্রলম্বিত। চুল-দাঁড়ি পেঁকেছিলো সর্বোচ্চ বিশটি।  চেহারা পূর্ণিমার চাঁদের মতো নির্মল ও উজ্জ্বল। এক কথায় সুশোভন দেহ সৌষ্ঠবের অধিকারী।

চুপ থাকলে বিরাজ করতো ভাব-গাম্ভীর্য। কথা বললে ছড়িয়ে পড়তো দীপ্তি। দূর থেকে প্রত্যক্ষ করলে সবচাইতে মনোরম চমৎকার মানুষ। কাছে থেকে দেখলে অত্যন্ত কোমল, সবার সেরা।

মিষ্টভাষী। প্রশস্ত কপাল, বিজড়িত ভ্রু কিন্তু একটি অপরটি থেকে আলাদা। সমুন্নত নাক। হালকা গাল। প্রশস্ত ও উজ্জ্বল মুখ, দাঁতগুলো হালকা ফাঁকা। দু’কাঁধের মাঝখানে ছিলো ‘মোহরে নবুয়ত’।

নবীজীর বর্ণনা যারা দিয়েছেন, সবশেষে এটাই বলেছেন- ‘তাঁর মতো কাউকে দেখিনি। আগেও না। পরেও না।’

টীকা:

  • সুনানে তিরমিযি, হাদীস: ৩৬৩৮, বা-বু সিফাতিন নাবিয়্যি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম।
পোস্টটি লাইক ও শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

একটি মন্তব্য লিখুনঃ